• বৃহস্পতিবার, ফেব্রুয়ারী ২২, ২০১৮
logoLeft চট্টগ্রাম জেলা পুলিশ
logoLeft

দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তর
খবর:

নোটিস

1 কমিউনিটি পুলিশিং ডে-২০১৭ উপলক্ষে চট্টগ্রাম জেলা পুলিশ সুপার জনাব নুরেআলম মিনা, পিপিএম এর কিছু কথা ডাউনলোড
——-
পুলিশ ও জনগণের মধ্যে পারস্পরিক আস্থা, সমঝোতা এবং পারস্পরিক শ্রদ্ধা বৃদ্ধি, পুলিশ ও জনগণের মধ্যে দূরত্ব হ্রাস করা, জনগণ যেন পুলিশকে আপন ভাবতে শেখে, জনগণের মধ্যে পুলিশভীতি ও অপরাধভীতি হ্রাস করা, পুলিশকে সহায়তার জন্য জনগণকে উদ্বুদ্ধ ও সাহসী করা, মানুষের মধ্যে পুলিশকে এড়িয়ে চলার প্রবণতা হ্রাস করা, জনগণকে পুলিশি কার্যক্রম ও সীমাবদ্ধতার বিষয়ে জানানোসহ বেশ কিছু লক্ষ্য নিয়ে বাস্তবতার নিরিখে বর্তমান ইন্সপেক্টর জেনারেল, বাংলাদেশ পুলিশ জনাব এ কে এম শহীদুল হক বিপিএম,পিপিএম মহোদয়ের উদ্যোগে বাংলাদেশ পুলিশে ২০০৭ সালে কমিউনিটি পুলিশিং দর্শনের প্রসার ও পরিস্ফুরণ ঘটানো হয়েছিল, তখন থেকেই দেশব্যাপী কার্যক্রম শুরু হয়।

ইন্সপেক্টর জেনারেল মহোদয় তখন রাজশাহী রেঞ্জের ডিআইজি, রাজশাহী বিভাগের প্রতিটি জেলায় প্রত্যেক থানায় এই কমিউনিটি পুলিশের কার্যক্রম নিয়ে জনগণের মধ্যে ব্যাপক সাড়া পড়ে তখন। এর আগে চট্টগ্রামে পুলিশ সুপার এবং অতিরিক্ত পুলিশ সুপার থাকাকালীন সময়ে তিনি উৎসাহ উদ্দীপনায় মেধা মনন এবং চিন্তা ও চেতনায় কমিউনিটি পুলিশিং নিয়ে জেলায় কাজ করেন এবং সফলতাও পান।আইজিপি মহোদয় মনে করতেন ঔপনিবেশিক শাসনামলের প্রণীত ও প্রচলিত আইন আজও আমাদের পুলিশ কর্মব্যবস্হাকে আচ্ছন্ন করে রেখেছে। সেই ঔপনিবেশিক শাসনামল থেকে চলে আসা আচার আচরণ দৃষ্টিভঙ্গি পুলিশ ও জনগণ উভয়ের মধ্যে প্রধান অন্তরায়। পুলিশ ও জনগণের মাঝে পারস্পরিক সমঝোতা ও আস্হা গড়ে উঠলে তবেই পুলিশি পরিসেবা নিশ্চিত হতে পারে। আর এ দুপক্ষ পুলিশ ও জনগণ তাদের মিলিত শক্তি যে ফল বয়ে আনতে পারে তা যে কোন এক পক্ষের দ্বারা অর্জন একেবারেই দুষ্কর। কমিউনিটি পুলিশের উজ্জীবিত শক্তি নাগরিক জীবনে নিয়ে আসে নিরাপত্তা নির্ভরতার পরম আশ্বাস।

শুরুর দিকটায় বেশকিছু জোর তৎপরতা চললেও রাজনৈতিক সহিংসতা ও অস্হিরতায়, অভ্যন্তরীণ ও বাহ্যিক নানা সীমাবদ্ধতার কারণে কমিউনিটি পুলিশিং কার্যক্রম বিগত দিনে কিছুটা ম্রীয়মান হয়ে পড়ে। বর্তমান আইজিপি মহোদয় দায়িত্ব নিয়েই বাংলাদেশ পুলিশের সকল ইউনিট সমুহে কমিউনিটি পুলিশিং কার্যক্রম জোরদারে প্রত্যয় ঘোষনা করেন। তারই ধারাবাহিকতায় চট্টগ্রাম জেলায় প্রত্যেক থানায় ওপেন হাউজ ডে র আয়োজনে সিনিয়র কর্মকর্তাদের উপস্হিতি এবং তাতে করে অপরাধ দমন ও প্রতিরোধে জনগণ ও পুলিশের সম্পৃক্ততা বৃদ্ধি পায়, থানাসমুহে সার্ভিস ডেলিভারী সিস্টেমের মাধ্যমে পুলিশের কাছে জনগণের প্রবেশাধিকার সহজ হয়।জেলার প্রত্যন্ত অঞ্চলেও উঠান বৈঠক,র্যা লী, স্কুল ভিজিট, ইত্যাদির মাধ্যমে জনসংযোগ সভা, অপরাধ বিরোধী সভা, বিকল্প বিরোধ নিস্পত্তি করা জঙ্গীকর্মকাণ্ড ও মাদক নিয়ন্ত্রণে কমিউনিটি পুলিশ বিশেষ অবদান রাখছে।
চট্টগ্রাম জেলা কমিউনিটি পুলিশিং সমন্বয় কমিটির কার্যপরিধি আরো বিস্তৃত করার লক্ষ্য নিয়ে এগিয়ে যাচ্ছে জেলা পুলিশ , ইতোমধ্যে বেশকিছু কর্মসূচী হাতে নেয়া হয়েছে। প্রতিটি থানা, পৌরসভা, ওয়ার্ড কমিটির সাথে মতবিনিয়ময় সভার আয়োজন করা, ইউনিয়ন কমিটিসমুহকে আরও কার্যকর করা সহ বিভিন্ন পেশাদারী কমিউনিটি পুলিশিং গঠন করা, এ কার্যক্রমে বিভিন্ন সমস্যা চিহ্নিতকরণ,সমস্যার সমাধান ও ভবিষ্যত করণীয় নির্ধারণ। কমিউনিটি পুলিশিং কার্যক্রমে চট্টগ্রামে সকলের সম্মিলিত প্রয়াসে থানা এলাকার ছোটখাট বিরোধ নিস্পত্তি যেমন হচ্ছে তেমনি মাদক ইয়াবা নিয়ন্ত্রণ,যৌতুক বিরোধী প্রচার,সড়ক দুর্ঘটনা হ্রাসকল্প ও বিভিন্ন সামাজিক অপরাধ নিরসনে উদ্ধুদ্ধকরন কর্মসূচীও চলছে।

জেলা সমন্বয় কমিটির নিয়মিত সভা অনুষ্ঠিত হচ্ছে। তেত্রিশ সদস্যবিশিষ্ট জেলা কমিটির মাধ্যমে থানার বিভিন্ন কার্যক্রম নিয়মিত মনিটর করা হচ্ছে। জেলার ষোলটি থানা সমন্বয় কমিটির সাথে ১৩টি পৌরসভা কমিটি, ১৯০টি ইউনিয়ন কমিটি, ১৮০৮ টি আঞ্চলিক ওয়ার্ড কমিটিও গঠন করা হয়েছে, গঠিত হয়েছে পরিবহন সেক্টরের ২১ টি কমিটি, এছাড়া হাটবাজার স্কুল কলেজ গ্রোথ সেন্টার নিয়ে ২২৪ টি কমিটিও গঠিত হয়েছে, চট্টগ্রাম জেলার কমিউনিটি পুলিশিং এ সম্পৃক্ত এ যাবৎ সদস্যের সংখ্যা ৫১৯৩২ জন।

চট্টগ্রাম জেলা পুলিশের প্রত্যেক সদস্য কমিউনিটি পুলিশিং কার্যক্রমের মাধ্যমে দেশপ্রেম, সততা, নিষ্ঠার সাথে দায়িত্ব পালন করে আগামী দিনের যে কোন চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় সমর্থ হবে।

চট্টগ্রাম জেলা কমিউনিটি পুলিশিং এর এ উন্নয়ন অগ্রযাত্রায় প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ ভাবে যে সমস্ত সন্মানিত সদস্য আন্তরিক সাহায্য ও সহযোগিতা দিয়ে আমাদের ধন্য করেছেন তাদের মধ্যে অন্যতম চট্টগ্রাম রেঞ্জের সম্মানিত ডিআইজি ড. এসএম মনির-উজ-জামান বিপিএম, পিপিএম মহোদয়। জেলা প্রশাসক মহোদয়ের সহযোগিতাও আমাদের এ কর্মযজ্ঞে বিশাল প্রেরণা। জেলার অসংখ্য সুধীজন, মিডিয়া কর্মকর্তা, জনপ্রতিনিধি, রাজনৈতিক ব্যক্তিবর্গ, ব্যবসায়ীবৃন্দ, চট্টগ্রাম জেলা পুলিশের সকল অফিসার ফোর্স, সম্মানিত জনসাধারণ সবার শ্রম মেধায় আমাদের চট্টগ্রাম জেলা কমিউনিটি পুলিশিং এর যাবতীয় কার্যক্রম এবং সকল প্রচেষ্টা সফল ও সার্থক হবে মর্মে আমাদের দৃঢ় বিশ্বাস ।

2 ইহুদিরা মুসলমানের নামে বিশ্বে জঙ্গিবাদ ছড়াচ্ছে ডাউনলোড

patiya-pic-2-800x468

চট্টগ্রাম জেলা পুলিশ সুপার নুরে আলম মিনা বলেছেন, কওমী মাদ্রাসায় সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ নেই। শুধুমাত্র পুলিশ দিয়ে জঙ্গি কার্যক্রম ঠেকানো সম্ভব নয়। জঙ্গিদের ঠেকাতে হলে এলাকার সচেতন ব্যক্তি ও প্রতিটি মসজিদের ইমামকেও মিথ্যা প্রচারণার বিরুদ্ধে স্বোচ্ছার হতে হবে। ইসলামকে কলঙ্কিত করতে বিধর্মী ও ইহুদিরা মুসলমানের নাম ব্যবহার করে বাংলাদেশসহ সারাবিশ্বে সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদি কর্মকান্ড চালাচ্ছে। প্রকৃত কোন মুসলিম জঙ্গি হতে পারে না। তাছাড়া মানুষ হত্যা করে ইসলাম কায়েম করার ইসলামে কোন বিধান নেই। সম্প্রতি বিভিন্ন জঙ্গিকর্মকান্ড যারা ধরা পড়েছে তৎমধ্যে একটিও মাদ্রাসার ছাত্র নেই। কিছু উচ্চ শিক্ষিত যুবক হতাশা গ্রস্ত হয়ে এবং আর্থিকভাবে কিছু যুবক জঙ্গিদের প্রলোভনে পড়ে তারা সন্ত্রাসী কর্মকা–ে জড়িয়ে পড়ছে। মুসলমানদের বিরুদ্ধে যাতে কোন ধরণের অপবাদ না হয় সে জন্য সজাগ থাকতে হবে। গতকাল সোমবার সকালে পটিয়ার আল জামিয়াতুল আরবিয়াতুল ইসলামিয়া জিরি মাদ্রসায় সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ বিরোধী সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে পুলিশ সুপার এ কথা বলেন। জিরি মাদ্রাসার মহাপরিচালক মওলানা শাহ্ মোহাম্মদ আবু তৈয়বের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সমাবেশে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (দক্ষিণ) একেএম এমরান ভূঁইয়া, সহকারী পুলিশ সুপার (শিক্ষানবিশ) চাতক চাকমা, পটিয়া থানার ওসি শেখ মো. নেয়ামত উল্লাহ, ওসি (তদন্ত) রেজাউল করিম মজুমদার, জিরি মাদ্রাসার নির্বাহী পরিচালক মওলানা মো. খোবাইব প্রমুখ। সমাবেশে পটিয়া থানার ওসি শেখ মো.নেয়ামত উল্লাহ জঙ্গিদের বসবাসের কৌশল সর্ম্পকে প্রচার পত্র মাদ্রাসার শিক্ষার্থীদের মাঝে বিলি করেন।

Page 1 of 3123



পুলিশ সুপার
sp জনাব নুরে আলম মিনা, পিপিএম, বিসিএস পুলিশ
বিস্তারিত

Facebook Like Box

আভ্যন্তরীণ ই-সেবা

কেন্দ্রীয় ই-সেবা

গুরুত্বপূর্ণ লিংক

মোট পরিদর্শক

003258
Visit Today : 1
This Month : 111
Total Hits : 10769
plugins by Bali Web Design

সাইটটি শেষ হাল-নাগাদ করা হয়েছে:   26-11-2017 08:26:46

    • সামাজিক যোগাযোগ
    •  
    •  
    •  
  • ডিজাইন & ডেভেলপড বাইঃ এফএলআইটি ০১৯৪৮২৬৩৩৫৮ / ০১৭২৯৭২৪২৩২